সংক্রমণের শীর্ষে কলকাতা, ধাপে ধাপে বিধিনিষেধ

মাত্র সাত দিনে ভারতের কলকাতা শহরে কোভিড সংক্রমণের হার প্রায় ২৪ শতাংশে (২৩.৪২) পৌঁছে গেছে।শনিবার (১ জানুয়ারি) ভারতের কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় সূত্রে এমনটি জানিয়েছে আনন্দবাজার পত্রিকা।

প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, সারা দেশে সংক্রমণের নিরিখে কলকাতা রয়েছে দ্বিতীয় স্থানে। হিমাচল প্রদেশের লাহুল-স্পিতি সংক্রমণের হারের নিরিখে কলকাতা থেকে ১ শতাংশ এগিয়ে রয়েছে। উত্তরের ওই শহরে সংক্রমণের হার আপাতত ২৫ শতাংশ। তবে চিকিৎসকদের অনেকে মনে করছেন, কলকাতায় আরও বেশি পরীক্ষা করালে সংকরমণের হারে লাহুল-স্পিতিকে ছাড়িয়ে যাওয়া স্রেফ সময়ের অপেক্ষা!

গত বুধবার পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী ইঙ্গিত দিয়েছিলেন, করোনা সংক্রমণ বাড়তে ৩ জানুয়ারি অর্থাৎ, সোমবার থেকে কিছু কিছু বিধিনিষেধ আবার চালু করা হবে। তেমন হলে স্কুল-কলেজ এবং বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে কিছুদিনের জন্য ‘ছুটি’ ঘোষণা করা হতে পারে। সরকারের তরফে প্রতিদিন পরিস্থিতি পর্যালোচনা করা হবে। সরকারি সূত্রের খবর, গত এক সপ্তাহে যে ভাবে রাজ্য এবং বিশেষত কলকাতায় সংক্রমণ বৃদ্ধি পেয়েছে, তাতে উদ্বিগ্ন নবান্ন।

শনিবার (১ জানুয়ারি) রাজ্যের মুখ্যসচিব হরিকৃষ্ণ দ্বিবেদীর সঙ্গে আলোচনা করেন মুখ্যমন্ত্রী। তার পরেই সিদ্ধান্ত হয়, সোমবারের দু’টি সরকারি কর্মচারী আপাতত স্থগিত রাখা হবে।

তবে নবান্নের একটি সূত্র জানাচ্ছে, এখনই ‘আংশিক লকডাউন’ বা ‘কঠোরতম বিধিনিষেধ’ জারির কথা ভাবা হচ্ছে না। এখনও বন্ধ হচ্ছে না ট্রেন, বাস বা মেট্রো পরিষেবাও। গোটা পরিস্থিতিই প্রতিনিয়ত পর্যালোচনা করা হচ্ছে। পরিস্থিতি বুঝে ধাপে ধাপে বিধিনিষেধ জারির কথা ভাবা হবে বা বিধিনিষেধের আওতা বাড়ানোর কথা ভাবা হবে।

Be the first to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published.


*