নববর্ষ পালনে মন্দিরে পদদলিত হয়ে ১২ জনের মৃত্যু

ভারতের কাশ্মীরের কাটরার বৈষ্ণোদেবী মন্দিরে পদদলিত হয়ে অন্তত ১২ জনের মৃত্যু হয়েছে। মৃতের সংখ্যা বাড়তে পারে।

আহত হয়েছে ১৪ জন। আহতদের স্থানীয় নারায়ণী হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়েছে। মন্দির চত্বরে মোতায়েন করা হয়েছে পুলিশ।

জম্মু-কাশ্মীর পুলিশের ডিজি দিলবাগ সিংহ সংবাদ সংস্থা এএনআইকে বলেন, বৈষ্ণোদেবী মন্দির চত্বরে পদপৃষ্ট হয়ে অন্তত ১২ জনের মৃত্যু হয়েছে। আহত হয়েছে ১৪ জন।

প্রাথমিক তদন্তে আমরা জানতে পেরেছি, রাত ২টা ৪৫ নাগাদ ওই ঘটনা ঘটে। দর্শনার্থীদের দুই দলের মধ্যে কথা কাটাকাটির এক পর্যায়ে সংঘর্ষের সৃষ্টি হয়। এতে পদদলিত হয়ে ১২ জনের মৃত্যু হয়।

জম্মু-কাশ্মীরের বৈষ্ণোদেবী মন্দিরে এমনিতেই প্রতি বছর ৩১ ডিসেম্বর এবং ১ জানুয়ারি অতিরিক্ত ভিড় হয়। কাটরা থেকে হেঁটে পাহাড়ি পথে প্রায় ১৪-১৫ কিলোমিটার যেতে হয় বৈষ্ণোদেবীর দর্শন পাওয়ার জন্য।

অনেকেই ওই পথ ঘোড়ায় চড়ে যান। পাহাড়ি পথের প্রায় পুরোটাই রাস্তা করা হয়েছে। খাদের দিকে রেলিং এবং জাল দিয়ে ঘেরা। তবে মন্দিরের ভেতরে পথ সঙ্কীর্ণ। সেখানে সাধারণ সময়েই ভিড় থাকে।
কর্তৃপক্ষের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে, মন্দিরের ভেতরে বৈষ্ণোদেবীর মূর্তি যেখানে রয়েছে, সেই সরু পথেই ধাক্কাধাক্কি শুরু হয়। সেখানেই পদদলিত হওয়ার ওই ঘটনা ঘটে।

Be the first to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published.


*