নিজেকে ‘নবী’ দাবি করা ধর্মগুরুকে কারাদণ্ড দিল আদালত

এবার নিজেকে ‘নবী’ দাবি করা এক ডাচ ধর্মগুরুকে যৌন নিপীড়নের দায়ে জেলে দিয়েছে জার্মানির আদালত। এক কিশোরীকে ১৪ বছর আটকে রেখে যৌন নিপীড়ন করেন স্বঘোষিত ওই ধর্মগুরু। তাকে পাঁচ বছরের কারাদণ্ড দিয়েছেন বিচারক।

এদিকে জার্মান সংবাদমাধ্যম ডয়চে ভেলের প্রতিবেদনে বলা হয়, সাজাপ্রাপ্ত ব্যক্তির নাম রবার্ট বি.। ৫৯ বছর বয়সী এই স্বঘোষিত ধর্মগুরুর বিরুদ্ধে অভিযোগ তিনি ২০০৬ সাল থেকে ২০২০ সাল পর্যন্ত এক নারীকে আটকে রেখে তার ওপর যৌন নিপীড়ন চালিয়েছেন।

গত বৃহস্পতিবার ৩০ ডিসেম্বর নেদারল্যান্ডসের সীমান্ত সংলগ্ন ক্লেভ শহরের আদালত রবার্টকে পাঁচ বছরের কারাদণ্ড দেয়। ২০২০ সালে নেদারল্যান্ডস সংলগ্ন আরেক শহর গখ-এ অভিযান চালিয়ে টানা ১৪ বছর যৌন নিপীড়নের শিকার হওয়া ওই নারীকে উদ্ধার করে জার্মান পুলিশ। এক উপাসনালয়ে আটক অবস্থায় পাওয়া যায় তাকে।

সেই অভিযানেই কথিত ধর্মগুরু রবার্ট বি. গ্রেফতার হন। তার ‘অর্ডার অব ট্রান্সফর্ম্যান্টস’ ধর্মের ৫৪ জন অনুসারীও তখন সেই উপাসনালয়ে ছিলেন। ৫৪ জন অনুসারীর মধ্যে ১০ জন শিশু। জানা গেছে, রবার্ট বি. কথিত ‘অর্ডার অব ট্রান্সফর্ম্যান্টস’র সকল অনুসারীর কাছে নিজেকে ‘নবী’ দাবি করতেন।

এদিকে রবার্ট বি. অবশ্য যৌন নিপীড়নের অভিযোগ অস্বীকার করে বলেন, ভুক্তভোগী নারী ঈশ্বরের দর্শন পেয়েছিলেন এবং এজন্য স্বেচ্ছায় তিনি নির্জনতাকে বরণ করেছিলেন। তার আইনজীবী জানিয়েছেন, ক্লেভের আদালতের রায়ের বিরুদ্ধে আপিল করা হবে

Be the first to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published.


*