স্বতন্ত্র প্রার্থীর নির্বাচনী অফিস ভাঙচুর, যুবলীগ নেতাকে জরিমানা

আগামী ৫ জানুয়ারি পঞ্চমধাপে অনুষ্ঠিত হবে সদর উপজেলার ১০টি ইউনিয়ন পরিষদের নির্বাচন। প্রতিটি ইউনিয়নেই প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থীরা জোরেশোরে চালাচ্ছেন প্রচার-প্রচারণা। শুক্রবার সন্ধ্যায় সুহিলপুর ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে স্বতন্ত্র চেয়ারম্যান প্রার্থী কামরুজ্জামান খান টিটুর (ঘোড়া) ইউনিয়নের ঘাটুরা গ্রামের নির্বাচনী অফিসটি ভাঙচুর করা হয়েছে।

এ ঘটনায় তার দেওয়া লিখিত অভিযোগের প্রেক্ষিতে ও সত্যতা পেয়ে হামলাকারী ইউনিয়নের ৮নং ওয়ার্ডের বর্তমান মেম্বার ও সদর উপজেলা যুবলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক মহসিন খন্দকারকে ১০ হাজার টাকা জরিমানা করেন ভ্রাম্যমাণ আদালত।

স্বতন্ত্র চেয়ারম্যান প্রার্থী কামরুজ্জামান খান টিটু (ঘোড়া) অভিযোগ করে বলেন, নির্বাচনী প্রচার কাজ চলাকালে ইউনিয়নের ৮নং ওয়ার্ডের মেম্বার ও সদর উপজেলা যুবলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক মহসিন খন্দকার ও তার সমর্থকরা ঘাটুরা গ্রামে স্থাপিত তার নির্বাচনী অফিসটি ভাঙচুর করে। এ ঘটনায় তিনি লিখিত অভিযোগ দিলে অভিযোগের সত্যতা পেয়ে জেলা প্রশাসনের নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেট রাজ কুমার বিশ্বাস ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করে ১০ হাজার টাকা জরিমানা করেন।
তিনি বলেন, আমার নির্বাচনী প্রচার কাজে বাঁধা প্রদান ও অফিস ভাঙচুরের ঘটনায় তিনি নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছেন।

এ ব্যাপারে ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনাকারী নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেট রাজকুমার বিশ্বাস বলেন, স্বতন্ত্র চেয়ারম্যান প্রার্থীর লিখিত অভিযোগ পেয়ে এবং ঘটনার সত্যতা পেয়ে অভিযুক্ত মহসিন খন্দকার নির্বাচনী অফিস ভাঙচুরের বিষয়টি স্বীকার করায় ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচন আচরণ বিধিমালা ভঙ্গের দায়ে নির্বাচনী আইন ২০১৬ এর ১৮(গ) ধারায় মহসিন খন্দকারকে ১০ হাজার টাকা জরিমানা ও পাশাপাশি তাকে সর্তক করা হয়।

Be the first to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published.


*