পড়েছিলেন ডাস্টবিনে, মিঠুন চক্রবর্তীর দত্তক নেয়া সেই মেয়েটি আজ অভিনয়ে

জন্মের পর পরিত্যক্ত অবস্থায় পড়েছিলেন ডাস্টবিনে। কয়েকটি মা কুকুর সারা রাত পাহারা দিয়েছিল

নিজের সন্তানের মতো। পরবর্তীকালে সেই কন্যাসন্তানকেই দত্তক নিয়েছিলেন মিঠুন চক্রবর্তী। নাম

দিয়েছিলেন দিশানী মিঠুন চক্রবর্তী । মিঠুনের অত্যন্ত প্রিয় কন্যা এবার ডেবিউ করলেন থিয়েটারে।

শৈশব থেকেই অভিনেত্রী হওয়ার ইচ্ছা ছিল দিশানীর। অভিনয় নিয়ে পড়াশোনা করেছেন তিনি। এর পাশাপাশি লি স্ট্র‍্যাসবার্গ ইনস্টিটিউটে কেম্বারলি হ্যারিস পরিচালিত সেমিনারে অভিনয় করলেন তিনি। এরপরেই দিশানীর অভিনয় প্রশংসিত হতে শুরু করেছে। থিয়েটারটিও বিভিন্ন মহলে অত্যন্ত সমাদৃত হচ্ছে।

তবে দিশানীর কাছে শ্রেষ্ঠ উপহার হল কিংবদন্তী শিল্পী আল পাচিনো-র প্রশংসা। আল পাচিনো দিশানীর অভিনয়ের প্রশংসা করে থিয়েটারটি আরও কিছুদিন চালিয়ে নিয়ে যেতে বলেছেন। এই কারণে উচ্ছ্বসিত দিশানী।

কয়েক বছর হল, অভিনয়ে কেরিয়ার শুরু করার চেষ্টা করছিলেন দিশানী। তবে তাঁর সাথে বারবার স্বাভাবিক ভাবেই চলে আসছিল তাঁর মেগাস্টার বাবা মিঠুনের তুলনা।

তবে এই থিয়েটারটির পর তাঁর নিজস্ব পরিচয় তৈরি হতে চলেছে বলে মনে করেন দিশানী। তবে তাঁর ভালো অভিনয়ের প্রচেষ্টা ছিল 2017 সালে তৈরি শর্ট ফিল্ম ‘হোলি স্মোক’ থেকে। এই শর্ট ফিল্মটি পরিচালনা করেছিলেন তাঁর দাদা উস্মেয় চক্রবর্তী । এছাড়াও ‘আন্ডারপাস’, ‘সুটেবল এশিয়ান ডেটিং উইথ পিএমবি’ নামের দুটি শর্ট ফিল্মে অভিনয় করেছিলেন দিশানী।

তাঁর অভিনয় কেরিয়ার প্রসঙ্গে দিশানী বলেছেন, তিনি একজন ভালো অভিনেত্রী হওয়ার স্বপ্ন দেখেছিলেন শৈশব থেকেই। দিশানী থিয়েটার ভালোবাসেন। তাঁর মতে, তাঁর শুরুটা সত্যিই অসাধারণ হয়েছে। কিংবদন্তী আল পাচিনো-র সামনে পারফর্ম করার সুযোগ পেয়ে অভিভূত তিনি।

দিশানী প্রতিদিন নিজের সেরা পারফরম্যান্স দেওয়ার চেষ্টা করেন যাতে তাঁর বাবা মিঠুন গর্বিত হতে পারেন। তবে এই কঠিন প‍্যান্ডেমিকের সময়ে ঈশ্বরের কাছে তাঁর একটাই প্রার্থনা, সকলে যেন সুস্থ থাকেন।

Be the first to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published.


*