সাদ্দাম হোসেনের ফাঁসির ১৫ বছর পর যে আহবান জানালেন তার মেয়ে

বাবার ফাঁসির ১৫ বছর পূর্তিতে মুখ খুললেন সাদ্দাম কন্যা রাঘাদ সাদ্দাম হুসাইন। তিনি ইরাকিদের ঐক্যবদ্ধ হতে বলে বিশ্বে যে পরিবর্তন ঘটছে তার সাথে ইরাকিদের খাপ খাওয়ানোরও আহ্বান জানিয়েছেন। খবর আল আরাবিয়ার। শুক্রবার বাবার প্রতিকৃতির সামনে বসে রাঘাদ সাদ্দাম হোসেন এ আহ্বান জানান। তিনি বলেন, সম্প্রদায় ও পটভূমি বিবেচনায় না নিয়ে ইরাকিদের একে অন্যকে ক্ষমা করে দেয়ার সময় এসেছে। এমনকি যারা ভুল করেছে তাদেরও ক্ষমা করে দেয়ার কথা বলেন তিনি।

এর আগে, চলতি বছরে এক সাক্ষাৎকারে রাঘাদ সাদ্দাম বলেছিলেন, বৈধ কর্তৃপক্ষ না থাকায় ইরান মনে করে তারা সহজে বশে আনতে পারবে ইরাককে। এছাড়া সর্বশেষ বক্তৃতায় তিনি ইরানকে সংঘাত ও বিরোধিতা ত্যাগ করার আহ্বান জানান।

উল্লেখ্য, ২০০৩ সালে যুক্তরাজ্যের নেতৃত্বে কতিপয় আন্তর্জাতিক রাষ্ট্র ইরাক আক্রমণ করে। তারা এই যুক্তি দেখিয়ে আক্রমণ করে যে, সাদ্দাম ব্যাপক ধ্বংসাত্বক জীবাণু অস্ত্র তৈরি করছেন (যদিও যুদ্ধ পরবর্তি সময়ে এমন কোন অস্ত্রের হদিস মেলেনি)। পরে ১৩ ডিসেম্বর ২০০৩ সালে সাদ্দাম হোসেন আমেরিকান সেনাদের কাছে ধরা পড়েন। পরবর্তীতে আমেরিকা ইরাকি সরকারের হাতে সাদ্দাম হোসেনের বিচার করে। সাদ্দামের বিরুদ্ধে ছিল মানবতার বিরুদ্ধে অপরাধ। ২০০৬ সালের ৩০ ডিসেম্বর ইরাকি সময় সকাল ৬.০৬ মিনিটে ইরাকে সাদ্দাম হোসেনের ফাঁসি কার্যকর হয়।

Be the first to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published.


*