মেহেদির রং না মুছতেই স্বামীর হাতে ঝরল সদ্য জিপিএ-৫ পাওয়া নববধূর প্রাণ

এবার মেহেদির রং না মুছতেই নড়াইলে লাবিবা ফারহানা শ্রাবণী নামে এক নববধূকে হত্যার অভিযোগ পাওয়া গেছে। সদ্য এসএসসির ফলাফলে জিপিএ-৫ পাওয়া ওই গৃহবধূ বিয়ের মাত্র তিন মাস না পার না হতেই কিশোর স্বামী হাসিবুর বিশ্বাসের নির্মম নির্যাতনে নিহত হয় বলে অভিযোগ নিহতের স্বজনদের।

গতকাল শনিবার ১ জানুয়ারি বিকেলে কালিয়া উপজেলার যাদবপুর গ্রামে শ্রাবণীর স্বামীর বাড়ি এ ঘটনা ঘটে। এ ঘটনার পর স্বামী হাসিবুর ও তার পরিবারে সবাই পালিয়েছেন বলে জানা গেছে।

এ বিষয়ে নিহতের স্বজনরা জানান, যাদবপুর গ্রামের হেমায়েত বিশ্বাসের ছেলে এইচএসসির ছাত্র হাসিবুরের সঙ্গে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে পরিচয় হয় খুলনা তেরোখাদা উপজেলার হাঁড়িখালি গ্রামের ফারুক শেখের মেয়ে এসএসসি পরীক্ষার্থী শ্রাবণীর। ধীরে ধীরে তা প্রেমে রূপ নেয়। বিষয়টি জানাজানি হলে উভয়ের পরিবারের সম্মতিতে মাত্র তিন মাস আগে তাদের বিয়ে হয়।

বিয়ের পরে মাস দুই না যেতেই পারিবারিক খুঁটিনাটি বিষয় নিয়ে শ্রাবণীকে শারীরিক ও মানষিকভাবে নির্যাতন শুরু করে হাসিবুর। এরই এক পর্যায়ে শনিবার বিকেলে শরীরের বিভিন্ন স্থানে হাসিবুরের এলোপাতাড়ি আঘাতে শ্রাবণী জ্ঞান হারিয়ে ফেলে। সেখান থেকে অচেতন অবস্থায় তাকে উদ্ধার করে নড়াইল সদর হাসপাতালে নেওয়া হলে চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন।

এ ব্যাপারে কালিয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শেখ কনি মিয়া জানান, এ ঘটনায় নিহতের স্বামীসহ অন্যদের ধরতে চেষ্টা চলছে। একইসঙ্গে মামলা দায়ের প্রক্রিয়াধীন।

Be the first to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published.


*